সাগরিকার পাড়ে ভক্তদের সঙ্গে খেললেন তামিম-মুশফিকরা

ক্রিকেট খেলাধুলা প্রধান খবর

চলছে বিপিএল। ধুমধাড়াক্কা এই ক্রিকেট আসরের দুটি পর্ব শেষ হয়েছে। সিলেট ও ঢাকা পর্ব শেষে দলগুলো এখন চট্টগ্রামে। তারকাদের মেলা বসেছে সাগরিকার পাড়ে। চট্টগ্রামে এসে সাগর দর্শন না করলেই নয়। আর সেটা যদি তারকা-সমর্থক এক সঙ্গে হয় তাহলে তো আনন্দটা দ্বিগুণ হয়ে যায়। আর সেই সুযোগটা করে দিল মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠান গ্রামীণফোন ও লাইভ টেকনোলজি। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারে অগণিত ভক্ত সমর্থকদের সঙ্গে দারণ কিছু সময় কাটালেন তামিম-সাব্বির-তাসকিন। কেবল তাই প্রিয় ক্রিকটারদের সঙ্গে খেলা ও সেলফি তোলার সুযোগ পেলেন ৮০ জন ভাগ্যবান টাইগারপ্রেমী।

বিচ ক্রিকেটের এই ম্যাচে দুই দলে ভাগ হয়ে খেলেন ক্রিকেটাররা। একদলে ছিলেন তামিম-সাব্বিরের মতো ক্রিকেটার তো অন্য দলে মুশফিক-সৌম্য। ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ১০ ওভারে ৯৯ রান করে তামিমের দল। জবাবে দুর্দান্ত অর্ধশতকে দলকে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে দেন প্রতিপক্ষ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। খেলার ফাঁকে ভক্ত সমর্থকদের অটোগ্রাফ-সেলফি আবাদর মেটান ক্রিকেটাররা। প্রিয় তারকাদের কাছে পেয়ে যারপরনাই খুশি ক্রিকেটপ্রেমীরা।

ম্যাচ শেষে অধিনায়ক মুশফিক বলেন, ‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই বিচকে বিশ্ববাসীর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য এ ধরনের উদ্যোগ প্রসংশনীয়। আমার খুব ভালো লাগছে যে এ ধরনের আয়োজনে থাকতে পেরেছি। ভবিষ্যতেও এ ধরনের আয়োজন অব্যাহত রাখা উচিত।’

তামিম ইকবাল অবশ্য আন্তর্জাতিক বিচ ক্রিকেটের দাবি জানালেন। এই ক্রিকেটার বলেন, ‘অনেক দেশেই বিচ ক্রিকেট হচ্ছে। আর আমাদের সমুদ্র সৈকত তো সবচেয়ে বড়। এখানে ক্রিকেটের সব ধরনের সুযোগ সুবিধা আছে। আমাদের সমুদ্র সৈকতটাও দারুণ সুন্দর। এখানে এই ধরনের আরো আয়োজন হওয়া উচিত।’