হাথুরুসিংহে চলে যাচ্ছেন বিশ্বাসই হচ্ছে না মিরাজের

ক্রিকেট খেলাধুলা

খবরটা এলো হঠাৎ করেই। কোন রকম আভাস ছাড়া। বাংলাদেশ দলের লঙ্কান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে আর থাকছেন না বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সঙ্গে। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) ই-মেল বার্তায় নিজের পদত্যাগ পত্র পাঠান তিনি। হাথুরু অনেক বিষয়ে সমালোচিত হলেও বাংলাদেশের ইতিহাসে অন্যতম সফল কোচ। যার অধীনে সাফল্যের ধারায় ছুঁটেছে বাংলাদেশ। হঠাৎ করেই এই লঙ্কানের চলে যাওয়ার খবরে অবাক হয়েছেন জাতীয় দলের অল-রাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ।

যতটুকা খবর চন্ডিকা হাথুরুসিংহে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন বলে বাংলাদেশ দলের কোচের পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। তবে তার শ্রীলঙ্কা দলের কোচ হওয়ার ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক কোন ঘোষণা আসেনি শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে। হাথুরুর পদত্যাগ পত্র গ্রহণের বিষয়ে বিসিবিও আনুষ্ঠানিক ভাবে কিছু জানায়নি। তবে পদত্যাগ পত্র জমা দেওয়ার পর থেকেই আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে এই লঙ্কান।

শুক্রবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলনে এসে যখন সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হলেন বিপিএলে রাজশাহী কিংসের হয়ে খেলা মেহেদী হাসান মিরাজ, তখন এলো হাথুরুসিংহের বিষয়ও। প্রসঙ্গটা উঠতেই মিরাজ বললেন তার অবাক হওয়ার কথা, ‘আসলে ডিসিশনটা হঠাৎ করে। অবাক করার মতো। আসলে আমি ওই রকমভাবে শিউর না। কাল শুনতে ছিলাম যে উনি চলে যাচ্ছেন। টিমটাকে উনি খুব ভালোভাবে হ্যান্ডেলিং করছিলেন। ওই ভালো বলতে পারবেন, কেনো যাচ্ছেন। হয়তো উনি ভালো মনে করছেন।’

বিপিএল শুরুর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর করে এসেছে বাংলাদেশ। সফরটা ছিল ব্যর্থতায় ভরা। দুই টেস্ট, তিন ওয়ানডে আর তিন টি-টুয়েন্টির সিরিজের সবকটিতেই হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ। সেই সিরিজে কি হাথুরুসিংহে চলে যাবেন এমন কিছু বোঝা যায়নি? মিরাজ এনিয়ে বলেন, ‘আমাদের কাছে ওইভাবে কখনো মনে হয়নি। আমি বিশ্বাসই করতে পারতেছি না। হঠাৎ করে সিদ্ধান্তটা আসছে। এখনো অনেকে সিরিয়াস না যে উনি চলে যাচ্ছেন। ওই রকমভাবে আলোচনা হয়নি আমাদের মধ্যে।’

২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে চুক্তি ছিল হাথুরুসিংহের। ২০১৪ সালে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব নেওয়ার পর হাথুরুসিংহের অধীনে বাংলাদেশ ২১টি টেস্ট, ৫২টি ওয়ানডে ও ২৯টি টি-টুয়েন্টি খেলে। এর মধ্যে ৬টি টেস্ট, ২৫টি ওয়ানডে ও ১০টি টি-টুয়েন্টিতে জয় পায় বাংলাদেশ।