হিজাব পরে ব্রিটেনবাসীর মন জয় করেছেন ২০ বছর বয়সী শাহিরা

মুসলিম নারীদের হিজাব নিয়ে পশ্চিমা দেশগুলোতে বিতর্কের শেষ নেই। সেসব দেশে হিজাব পরিধান নিয়ে নারীদের বিব্রতকর অবস্থায়ও পড়তে হয়। এছাড়া হিজাব পরা নরীদের উপর হামলার ঘটনাও শোনা যায় প্রায়ই।

কিন্তু এত প্রতিকূলতার মধ্যেও হিজাব পরেই ব্রিটেনবাসীর

মন জয় করেছেন ২০ বছর বয়সী শাহিরা ইউসুফ। সবার ধারনা, তিনিই হতে যাচ্ছেন ফ্যাশন দুনিয়ার পরবর্তী তারকা।

লন্ডনে জন্ম নেয়া শাহিরাই প্রথম ব্রিটিশ ফ্যাশন ক্যাটওয়াক মডেল যিনি মাথায় হিজাব পরেন। শাহিরার জন্ম লন্ডনে হলেও তার মা-বাবা এসেছেন সোমালিয়া থেকে।

শাহিরা বলেন, আমার বয়স যখন ১৭ তখনই আমাকে মডেলিংয়ের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু আমি রাজি হইনি।

 

কারণ হিসেবে তিনি বলেন, আপনার বয়স যখন কম থাকবে, তখন বাস্তব জ্ঞানও কম থাকবে। তাই আপনাকে বড় হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। না হলে ফ্যাশন দুনিয়া আপনাকে গিলে খেতে পারে। এই পেশায় আসার সময় আমি নিজে কিছু সীমানা বেঁধে দিয়েছি। এই সীমানা কাউকেই অতিক্রম করতে দেব না।

শাহিরা আরও বলেন, আমি যে একজন মুসলমান এবং আমি হিজাব পরি, এটা নিয়ে আমার নিজের কোন মাথাব্যথা নেই। তাই বলে কেউ যেন আমাকে অপাত্র বলে বিবেচনা না করেন। আমি চাই ফ্যাশন দুনিয়ার বাইরে সমাজ যেভাবে বদলে যাচ্ছে, তেমনি ফ্যাশন দুনিয়ার ভেতরের সংস্কৃতিতেও পরিবর্তন আসুক।

তার আশা, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তার মতো আরও অনেক মুসলিম মেয়ে ফ্যাশন মডেলিংয়ে আসবেন।

শাহিরার এজেন্ট বিলি মেহমেট জানান, ফ্যাশন দুনিয়াও এখন বদলে যাচ্ছে। তাদের ক্লায়েন্টরা এখন শুধু রূপসীদের চান না, তারা চান রূপের পাশাপাশি থাকবে মেধা। তারা চান মডেলরা হবে শিল্পী কিংবা সমাজকর্মী।

তিনি বলেন, শাহিরার কারণে আরও হিজাবধারী মুসলিম মেয়েরা নিজেদের মেলে ধরার সাহস পাবেন। তারা চিন্তা করবেন, শাহিরা পারলে আমরা কেন ফ্যাশন মডেল হতে পারবো না?

Comments

comments

Leave A Reply

Your email address will not be published.