১ ছক্কার কাছে হার মানল ১১টি ছক্কা

ক্রিকেট খেলাধুলা

মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) রাতে চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে বড় রান করেও চেন্নাইয়ের কাছে ৫উইকেটে হারল কলকাতা নাইট রাইর্ডাস। ম্যাচটিতে টসে জিতে নাইটদের ব্যাট করতে পাঠান চেন্নাই অধিনায়ক ধোনি৷ প্রথম ব্যাট করে ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার রাসেলের বিধ্বংসী ইনিংসে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে চেন্নাইয়ের সামনে ২০৩ রানের লক্ষ্য রাখে নাইটরা।

রাসেল তার ৩৬ বলে অপরাজিত ৮৮ রানের ইনিংসে ১১টি ছয় মেরেছে। কলকাতা শুধু তার জন্যই ২০২ তুলতে পারল। কিন্তু শেষ ওভারে জাদেচার মারা একটি ছয়ের কাছে সব ম্লান হয়ে গেল। হারিয়ে গেল রাসেলের এমন একটা ইনিংস।

পাঁচ উইকেট হারিয়ে কেকেআরের যখন সংগ্রহ ৮৯ রান। ঠিক তখনি ব্যাট হাতে আসেন রাসেল। দলীয় হতাশার মাঝে থেকেয় হাত খুলেন তিনি।   অসধারণ ছিল তার ব্যাটিং লাইন আফ। তিনি পুরোপুরি ‘পাওয়ার হিটার’। অর্থাৎ শারীরিক শক্তির ওপর নির্ভর করে শটগুলো খেলে থাকেন। বেশির ভাগ শট নেওয়ার সময়ই দেখছিলাম, রাসেলের বাঁ পা লেগ স্টাম্পের অনেক বাইরে চলে যাচ্ছিল। আর ডান পা নিয়ে আসছিল অফ স্টাম্পের ওপর। ফলে লং অন থেকে ডিপ মিড উইকেট— এই পুরো অঞ্চল জুড়ে শট খেলার জায়গা তৈরি করতে পারছিল। রাসেল বটম হ্যান্ড ব্যাটসম্যান। মানে শট খেলার সময় যে ব্যাটসম্যান নীচের হাতের শক্তি ব্যবহার করে। রাসেলের ক্ষেত্রে যেটা ওর ডান হাত। ‘বটম হ্যান্ড ব্যাটসম্যান’ বলে বলগুলো ও ভাবে তুলে মারতে পারছিল। যে জন্য বাউন্ডারির চেয়ে বেশি ওভারবাউন্ডারি রাসেলের ইনিংসে।