সুদ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে স্ট্যাটাস দেয়ায় তিন সাংবাদিকের ওপর হামলা: বিএমএসএফ’র প্রতিবাদ

অন্যান্য অপরাধ ও দুর্নীতি বাংলাদেশ

ঢাকা প্রতিনিধি: সুদ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় ডেকে নিয়ে ঝালকাঠির ৩ সাংবাদিককে এলোপাথারি পিটিয়ে আহত ও লাঞ্ছিত করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে ঝালকাঠি শহরের কাঠপট্টি এলাকায় সুদ ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিল এক যুবককে দিয়ে ফোনে ডেকে তাদের ওপর হামলা চালায়। এতে আহত হয়েছেন মোহনা টিভির প্রতিনিধি ও বিএমএসএফ’র স্থানীয় সহ-সভাপতি রুহুল আমিন রুবেল, সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু ও সদস্য বশির আহম্মেদ খলিফা। আহতদের মধ্যে রুবেল ও বশির ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এদিকে ২৯ মার্চ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের মধ্যে কর্তব্যরত অবস্থায় বশিরুল ইসলাম নামে এক সাংবাদিককে কুপিয়ে আহত করা হয়।

এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় সভাপতি শহীদুল ইসলাম পাইলট ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর। নেতৃবৃন্দ বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত দূ:খজনক হলেও সত্য যে আজ সাংবাদিকরাই সাংবাদিক বিরোধী। একজন সুদ ব্যবসায়ীর পক্ষ নিয়ে ৩ সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করার ঘটনা চরম হতাশার। হামলাকারীরা হামলা চালানোর ভিডিও ছেড়ে দিয়ে সাংবাদিকদের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা হচ্ছে। প্রশাসনকে সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারী সন্ত্রাসিদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনারও দাবি করা হয়েছে। নইলে বিচারের দাবিতে দেশব্যাপী কঠোর আন্দোলনেরও হুশিয়ারী উচ্চারণ করা হয়।

জানাগেছে, ওই সাংবাদিকদের মধ্যে বশির আহম্মেদ তার নিজ আইডিতে করোনার মধ্যেও সুদ ব্যবসায়ী হাবিলের অত্যাচারে অতিষ্ট এলাকাবাসি। বশির এই ধরনের একটি পোস্ট আজ সোমবার সকালে নিজ আইডিতে প্রচার করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হাবিলের পক্ষ হয়ে স্থানীয় সাংবাদিক আককাস সিকদার তাদের ওপর চড়াও হয়ে বেদরক মারধর করে। এ সময় হামলাকারীরা তাদের ক্যামেরা, মোবাইল ও টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয়। এ সময় বিএমএসএফ জেলা সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু প্রতিবাদ করলে তাকেও লাঞ্ছিত করা হয়।

এদিকে কিছু সাংবাদিক নিজ পেশাকে জলাঞ্জলি দিয়ে সুদ ব্যবসায়ীর পক্ষ নিয়ে হামলা ও মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করায় তাদের প্রতি নিন্দা জানায় বিএমএসএফ।