দ্বন্দ্ব ভুলে এক মঞ্চে চলচ্চিত্র পরিবার ও জাজ!

চলচ্চিত্রের ১৮টি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত ‘চলচ্চিত্র পরিবার’ ও চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া দুই ভাগে বিভক্ত। এ দুটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দা-কুমড়ার সর্ম্পক তা অনেক আগেই স্পষ্ট হয়েছে। এবার শোনা যাচ্ছে, সব দ্বন্দ্ব ভুলে একই মঞ্চে দাঁড়াতে যাচ্ছেন এই দুই প্রতিষ্ঠানের শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিরা।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিএফডিসিতে বড় পরিসরে ‘দহন’ সিনেমার ট্রেইলার প্রকাশনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বরেণ্য চলচ্চিত্র ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব আকবর হোসেন পাঠান (চিত্রনায়ক ফারুক)। এছাড়াও চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতি, পরিচালক সমিতি, শিল্পী সমিতিসহ চলচ্চিত্রাঙ্গনের সকল সংগঠনের নেতা ও সদস্যরা উপস্থিত থাকবেন বলে জানা যায়।

এদিকে বিএফডিসির মান্না ডিজিটাল কমপ্লেক্স চত্বরে এ অনুষ্ঠানের আয়োজনের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে। এতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও নৈশ ভোজের আয়োজনও করা হয়েছে। এ বিষয়ে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘জাজের অনুষ্ঠানে যাব কি না এ বিষয়ে আমরা এখনো সিদ্ধান্ত নেইনি। তবে আমাদের সর্বজন শ্রদ্ধেয় ফারুক ভাইর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলব। আমরা সেখানে গেলে অবশ্যই সবাইকে নিয়ে যাব। আমরাও চাই সবাই একসঙ্গে কাজ করতে। কারো সঙ্গে আমাদের বিরোধ নেই।’

গত বছরের ঈদুল ফিতরে ‘বাদশা’ ও ‘নবাব’ নামে দুটি যৌথ প্রযোজনার সিনেমা মুক্তি না দেয়ার জন্য আন্দোলনে নেমেছিল চলচ্চিত্রের ১৮টি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত ‘চলচ্চিত্র পরিবার’। এ নিয়ে রাজপথে মিছিল, সেন্সর বোর্ডের সামনে অবস্থান ধর্মঘট, এমনকি সেন্সর বোর্ডের সদস্য ও হল মালিক সমিতির সভাপতি নওশাদকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনাও ঘটে। এরপর চলচ্চিত্রাঙ্গন দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে যায়।

নাসির উদ্দিন দিলু, কাজী হায়াৎ, আব্দুল আজিজ, ওমর সানি, মৌসুমী, শাকিব খানসহ প্রায় দুইশত সদস্য নিয়ে গঠন করা হয় ‘চলচ্চিত্র ফোরাম’ নামের নতুন সংগঠন। চলচ্চিত্রের দুই ভাগে বিভক্তের কারণে প্রযোজক চলচ্চিত্রের অর্থ লগ্নি করতে ভয় পাচ্ছেন। যার ফলে সিনেমা নির্মাণ কিছুটা হলেও কমে যাচ্ছে। মাঝে চলচ্চিত্রে সুদিনের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিল। এখন এ সম্ভাবনা অনেকটাই মলিন। এর একমাত্র কারণ দুই ভাগে বিভক্ত হওয়া।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে চলচ্চিত্রের সকল ভেদাভেদ ভুলে একসঙ্গে কাজ করবেন সবাই। এ লক্ষ্যেই জমকালো আয়োজন করছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। ক্ষমতা প্রদর্শনের প্রতিযোগিতা না করে সিনেমা নির্মাণের প্রতিযোগিতা করলেই এ দেশের শিল্পী ও কলাকুশলীরা কাজের সুযোগ পাবেন। ফিরে আসবে চলচ্চিত্রের সুদিন এমনটাই মনে করছেন চলচ্চিত্র বোদ্ধারা।

সূত্র- রাইজিংবিডি

Comments

comments

Leave A Reply

Your email address will not be published.