ফেসবুক নিয়ে ভক্তদের যা বললেন: মোশাররফ

ডি বি এন২৪ নিউজ ডেস্কঃ বাংলাভিশনে আজ থেকে প্রতি মঙ্গল ও বুধবার রাত ৯টা ৫ মিনিটে প্রচারিত হবে ধারাবাহিক নাটক ‘চাটাম ঘর’। এটি লিখেছেন মুহাম্মদ মামুন-অর-রশীদ, পরিচালনা করেছেন শামীম জামান। এতে অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম। নাটকটি নিয়ে মোশাররফের সঙ্গে যখন কথা হয়, তখন তিনি ছিলেন সহোদর শামস করিম পরিচালিত একটি নাটকের শুটিংয়ে পুবাইলে।

পুবাইলে কোন নাটকের শুটিং করছেন?
হোসেন ভাইয়ের দোকানে আসা মানুষ নামে আরটিভির জন্য একটি ধারাবাহিকের শুটিং করছি। এটি পরিচালনা করছে আমার আপন ছোট ভাই শামস করিম। নাটকটির দ্বিতীয় ধাপের কাজ চলছে। আমার নিজ প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এম প্রোডাকশন থেকে তৈরি হচ্ছে এটি।

নিজের ভাইয়ের পরিচালনায় কাজ করতে কেমন লাগে?
অনেক দিন ধরেই ওর সঙ্গে কাজ করছি। এর আগে ওর বেশ কয়েকটি এক ঘণ্টার নাটকে অভিনয় করেছি। ওর পরিচালনায় এবারই প্রথম ধারাবাহিকে কাজ করছি।

আপনার ভাই পরিচালক হওয়ায় তিনি কি আপনার কাছ থেকে শুটিংয়ে বিশেষ সুযোগ–সুবিধা পান?
না। সব পরিচালকই আমার কাছে সমান। আমার বোনের ছেলেও পরিচালনা করে। আমি তাদের আলাদা অগ্রাধিকার দিই না। দিলে তো আমাকে নিয়ে তারা ভূরি ভূরি কাজ করতে পারত। তাদের কাজ ভালো হলে করি।

‘চাটাম ঘর’-এর মানে কী?
এটি একটি আড্ডার ঘর। নদীর ধারে। সেখানে কাজের চেয়ে অকাজের কথা বেশি হয়। ঝগড়া, বিচার, সালিস—সবই হয় সেখানে। কাজ ফেলে একশ্রেণির মানুষ সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ওই চাটাম ঘরে আড্ডা দেয়। ওই ঘরের আড্ডায় নেশার মতো আসক্ত হয়ে পড়ে গ্রামের মানুষেরা। মোট কথা ‘অতিকথন জীবনের জন্য শুভ নয়’—চিরন্তন এই কথাটার বার্তাই পাওয়া যাবে চাটাম ঘর নাটক থেকে।

নাটক প্রযোজনায় কি নিয়মিত হবেন?
এর আগে বেশ কিছু এক ঘণ্টার নাটক প্রযোজনা করেছি। এখন ধারাবাহিক করছি। চাটাম ঘর নাটকটিও আমার প্রযোজিত। নিয়মিত করব কি না, তা বলা মুশকিল। দেখা যাক, কত দিন করা যায়।

সিনেমা প্রযোজনা করার ইচ্ছা আছে?
না, সিনেমা প্রযোজনা করার ইচ্ছা নেই। এটা তো অনেক বড় ব্যাপার। এটা নিয়ে আপাতত ভাবছি না।

নতুন কোনো সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন?
সর্বশেষ তৌকীর আহমেদের হালদায় অভিনয় করেছি। এর মধ্যে অনেক সিনেমার প্রস্তাব পেয়েছি। কিন্তু কোনোটাই চূড়ান্ত করিনি।

কত দিন অভিনয় করতে চান? 
অভিনয় ছাড়া তো কিছু পারি না। সুতরাং অভিনয়টাই করে যেতে চাই এবং তা ঠিকঠাকমতোই করতে চাই।

শোনা যায়, আপনার ফেসবুক আইডি নিয়ে ভক্তরা বিভ্রান্তিতে পড়েন। এত বিভ্রান্তি কেন? 
বিভ্রান্তির কথা আমিও শুনি। সত্যি বলতে, আমি ফেসবুকে নেই। কিন্তু ফেসবুক আমার নামের অসংখ্য নকল অ্যাকাউন্টে ভরে গেছে। এ কারণে আমার ভক্তদের অনেকই প্রতারিত হচ্ছেন। এটা খুব কষ্টের। ফেসবুকে আমার একটি অফিশিয়াল পেজ আছে। শুভাকাঙ্ক্ষী, ভক্তদের ওই পেজে আমার সঙ্গে থাকার অনুরোধ করছি। তাহলেই আর বিভ্রান্ত কিংবা প্রতারিত হবেন না কেউ।

শেষ তিন প্রশ্ন
পরিচালক হলে আপনি এ প্রজন্মের কোন জুটিকে নিয়ে কাজ করতে চান? 
গল্পের সঙ্গে গেলে সাবিলা নূর ও তৌসিফ মাহবুবকে নেব।

সুযোগ হলে কোন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রিত্ব বেছে নেবেন? 
সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়। মানুষের মধ্যে সংস্কৃতি ঢোকানো গেলে দেশ আরও সুন্দর হবে।

নিজের আত্মজীবনী লিখলে কী নাম দেবেন? 
ঘুঙুরের মতো বেজে চলি, কখনো এর পায়ে, কখনো ওর পায়ে।

Comments

comments

Leave A Reply

Your email address will not be published.